Wednesday, September 28, 2022
Homeসব খবরবিনোদন৪ দিনে আয় ২ কোটি, ইউএস টপচার্টে বাংলাদেশের ‘হাওয়া’

৪ দিনে আয় ২ কোটি, ইউএস টপচার্টে বাংলাদেশের ‘হাওয়া’

মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত ‘হাওয়া’ ছবি মুক্তির পর থেকেই সাফল্যের হাওয়ায় ভাসছে বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি। প্রায় এক দশক পর দেশের হলগুলো বর্তমানে হাউসফুল যাচ্ছে। এমনকি হলিউড সিনেমা নামিয়ে হলগুলোতে হাওয়া সিনেমা ওঠানো হয়েছে। এই হাওয়া বিদেশের মাটিতেও দাপট দেখাচ্ছে।

গত ২ সেপ্টেম্বর স্বপ্ন স্কেয়ারক্রোরপরিবেশনায় ‘হাওয়া’ উত্তর আমেরিকায় মুক্তি পায় । প্রথম সপ্তাহে কানাডায় ১৩টি এবং আমেরিকায় ৭৩টি মোট ৮৬ হলে মুক্তি পায় ছবিটি। দ্বিতীয় সপ্তাহেও বেশ কিছু থিয়েটারে মুক্তির দিন গুণছে ‘হাওয়া’। এবার জানা গেলো মুক্তির প্রথম চারদিনে (লেবার ডে লং উইকেন্ড-এ) বক্সঅফিসে ঝড় তুলে ইউএস টপচার্টে চলে এসেছে ‘হাওয়া’। এটিই বাংলাদেশের কোন সিনেমার প্রথম ইউ এস টপ চার্টে আসা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আন্তর্জাতিক পরিবেশক স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো এর প্রেসিডেন্ট মোঃ অলিউল্লাহ সজীব ।

আজ দুপুরে স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো বাংলাদেশে পেজে এ তথ্যগুলো জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘কানাডা ও আমেরিকার বাংলাদেশের সিনেমার দর্শকদের আগ্রহে বক্স অফিসে একটি ঘুর্ণিঝড়ের সংকেত দেখেছিলাম আমরা। সে ঝড় যে এত বড় হবে তা ছিল আমাদের কল্পনারও বাইরে। এই আনন্দের ক্ষণে আমি প্রথমেই টিম ‘হাওয়া’ এবং টিম ‘স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো বাংলাদেশ’কে অভিনন্দন জানাই। সে সাথে উত্তর আমেরিকার দর্শকদের জানাই কৃতজ্ঞতা।’

সজীব জানান, ‘বাংলাদেশের প্রথম সিনেমা হিসেবে ‘হাওয়া’ ইউএস টপচার্টে জায়গা করে নিয়েছে! তাও আবার টপ ৩০-এ, ২৭ নম্বরে অবস্থান করছে ছবিটি। লেবার ডে থাকার কারণে একদিন উইকেন্ড বেশি ছিল এবার। সেই হিসেবে প্রথম ৪ দিনে ‘হাওয়া’র গ্রস বক্স অফিস কালেকশন ২ লাখ ১৩ হাজার ৪৬১ ডলার। যার মধ্যে কানাডায় ৮৬,৩১২ ডলার, আমেরিকায় আয় করেছে ১২৭,১৪৯।

এখন পর্যন্ত সিনেমাটি দেখেছেন ২৫,৪৪৪ জন। এর মধ্যে কানাডার ৯,৯৩০ জন, আমেরিকায় ১৫,৫১৪ জন দেখেছেন।’ সজীব আরও জানান, উত্তর আমেরিকার বক্স অফিসে এতদিন পর্যন্ত সর্বোচ্চ আয় করা বাংলাদেশি সিনেমা ‘দেবী’। ছবিটির আয় ছিল ১ লাখ ২৫,৪১৪ ডলার।

প্রযোজনা সংস্থা সান মিউজিক অ্যান্ড মোশন পিকচার্সের পক্ষে সিনেমার নির্বাহী প্রযোজক অজয় কুমার কুন্ডু বলেন,’হাওয়া’ আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে এটাই আমাদের জন্য সবচেয়ে গৌরবের। এমন মুভির সাথে আমরা যুক্ত আছি এটাও দারুণ সন্মানের বিষয়। আমি উত্তর আমেরিকার দর্শক,টিম ‘হাওয়া’,পরিবেশক স্বপ্ন স্কেয়ারক্রোকে ধন্যবাদ জানাই।

‘হাওয়া’ সিনেমার পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন অভিষেক সিনেমায় দেশের পর উত্তর আমেরিকায় এমন ঝড় তোলায় উচ্ছসিত এবং বিস্মিত। তিনি বলেন,একজন পরিচালকের সিনেমাও যে সবশ্রেনীর দর্শকের সিনেমা হয়ে উঠতে পারে হাওয়া সে বিশ্বাস দিলো আমাকে। আমি উত্তর আমেরিকার দর্শক, টিম হাওয়া এবং পরিবেশক স্বপ্ন স্কেয়ারক্রোকে ধন্যবাদ জানাই।

বাংলাদেশে মু্ক্তির পর ইতোমধ্যেই ব্লকবাস্টারের পথে ছুটছে ‘হাওয়া’। ছবির সাদা সাদা কালা কালা গানটি অসম্ভব জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নানা চরিত্রে দর্শকদের মোহাবিস্ট করেছেন চঞ্চল চৌধুরী,নাজিফা তুষি,শরীফুল রাজ,সোহেল মন্ডল,সুমন আনোয়ারসহ সবাই।-সমকাল।

Advertisement