Wednesday, November 30, 2022
Homeসব খবরজাতীয়স্বামীকে বাস থেকে ফেলে দিয়ে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধ'র্ষণ

স্বামীকে বাস থেকে ফেলে দিয়ে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধ’র্ষণ

টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষ’ণের ঘটনা নিয়ে যখন সারা দেশ তোলপাড় তার একদিন যেতে না যেতে গাজীপুরের শ্রীপুরে চলন্ত বাস থেকে স্বামীকে ফেলে দিয়ে এক নারীকে (২১) সংঘবদ্ধ ধর্ষ’ণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (৫ আগস্ট) দিবাগত ভোরে এ ঘটনার শিকার হন ওই নারী।

শনিবার (৬ আগস্ট) এ ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপ’রাধ) সানোয়ার হোসেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম-পরিচয় জানাননি তিনি।

সানোয়ার হোসেন জানান, নওগাঁ থেকে স্বামী-স্ত্রী বাসে করে গাজীপুর যাচ্ছিলেন। গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস মোড়ে শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে নওগাঁ থেকে আসা বাসটি তাদের নামিয়ে দেয়। তারা শ্রীপুরের স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় যাওয়ার জন্য ওই মোড় থেকে তাকওয়া পরিবহনে ওঠেন। বাসটি মাওনা ফ্লাইওভারের কাছে এলে বাসের হেলপার, চালক এবং অজ্ঞাত আরও তিনজন মিলে স্বামীকে মারধর করে। ওই নারী ও তার স্বামীর কাছ থেকে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। তারপর বাস থেকে ওই নারীর স্বামীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এরপর তারা ওই নারীকে বাসের মধ্যে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে। ধর্ষ’ণের পর তারা বাসটি ঘুরিয়ে ওই নারীকে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় ফেলে রেখে বাস নিয়ে পালিয়ে যায়।

ঘটনার পর ওই নারীর স্বামী শনিবার সকালে শ্রীপুর থানায় মাম’লা করেন। পরে শ্রীপুর থানা ও গাজীপুর জেলা ডিবি পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেফতার করে। নির্যা’তনের শিকার নারী ও তার স্বামী শ্রীপুরের স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন।

এ বিষয়ে রবিবার (৭জুলাই) বিস্তারিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সানোয়ার হোসেন।

Advertisement