Saturday, October 1, 2022
Homeসব খবরজাতীয়সবাইকে দিয়ে তারপর আমি নেব : প্রধানমন্ত্রী

সবাইকে দিয়ে তারপর আমি নেব : প্রধানমন্ত্রী

করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগে আগে নিলে বলবে আগে নিজেই নিল, কাউকে দিল না। সবাইকে দিয়ে নিই তারপর আমি নেব। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে এই টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইমরান হামিদের টিকা গ্রহণ শেষে প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে বলেন, মন চাচ্ছে আমরা গিয়ে নিয়ে আসি। আগে আগে নিলে বলবে আগে নিজেই নিল, কাউকে দিল না। সবাইকে দিয়ে নিই, তারপর আমি নেব। প্রথম টিকা গ্রহণের সময় প্রধানমন্ত্রী রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে জিজ্ঞেস করেন তোমার ভয় লাগছে না তো? জবাবে রুনু বলেন, না।

এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, খুব সাহসী তুমি। তুমি সুস্থ থাকো, ভালো থাকো। আরও অনেক রোগীর সেবা করো। সেই দোয়া করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বের অনেক দেশ এখনও করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি। আমরা এই ঘনবসতিপূর্ণ দেশে শুরু করেছি। এটা ঐতিহাসিক দিন। ইনশাআল্লাহ আমরা করোনার এ স্থবির অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাব।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, করোনায় সব স্থবির হয়ে গেছে। এই করোনা চরম আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ছেলে পর্যন্ত মায়ের লাশ স্পর্শ করেনি। আত্মীয়স্বজনরা কেউ এগিয়ে আসেনি। এমন সংকটে আমরা মানুষের পাশে ছিলাম। আর্থসামাজিক গতিশীলতা রক্ষায় বিশেষ প্রণোদনা দিয়েছি। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যাবতীয় উদ্যোগ নিয়েছি। ভ্যাকসিনও অনেক দেশের আগে আমরা দিচ্ছি ‘

এদিকে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামীকাল থেকে কয়েকদিন ধরে ঢাকার চারটি হাসপাতালে প্রায় পাঁচশ মানুষকে পরীক্ষামূলকভাবে টিকা দেয়া হবে, তাদের সবাই স্বাস্থ্যকর্মী। বাকি তিনটি হাসপাতাল হচ্ছে – উত্তরার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। দেশে পুরোপুরি টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি। শুরুতেই পাবেন সম্মুখ সারিতে থাকা বিভিন্ন পেশার মানুষেরা। পাশাপাশি ৫৫ বছরের ঊর্ধ্বে বয়সের ব্যক্তিরাও টিকা নেয়ার সুযোগ পাবেন।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি দেশে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলো। বুধবার বিকাল চারটা পাঁচ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। একজন নার্সকে টিকাদানের মাধ্যমে শুরু হয় এই কর্মসূচি। পরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. নাসিমা সুলতানাসহ আরও কয়েকজন টিকা নেন।

Advertisement