Thursday, October 6, 2022
Homeসব খবরজেলার খবরলঞ্চের কেবিনে তরুণীকে রাতভর ‘ধর্ষণ’, সকালে পালালো যুবক

লঞ্চের কেবিনে তরুণীকে রাতভর ‘ধর্ষণ’, সকালে পালালো যুবক

বরিশাল থেকে ঢাকাগামী লঞ্চের কেবিনে এক তরুণীকে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মাইদুল ইসলাম মাসুম নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। গত শনিবার এই ঘটনা ঘটে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত শনিবার রাতে রাজহংস-১০ লঞ্চে করে রাজধানী ঢাকায় যাচ্ছিলেন জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার একটি গ্রামের বাসিন্দা মাসুম ও ওই তরুণী। ভুক্তভোগী ওই তরুণী লঞ্চের ডেকে থাকায় মাসুম তাকে গভীর রাতে ডেকে কেবিনে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে প্রথমে বিয়ে ও পরে নির্মাণাধীন বিল্ডিং তার নামে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও রাজি না হওয়ায় একপর্যায়ে ধর্ষণ করে। পরের দিন রোববার সকালে তরুণীকে ঢাকা নৌ-টার্মিনালে ফেলে মাসুম পালিয়ে যায়।

তরুণী সোমবার এলাকায় ফিরে মাসুমের বিরুদ্ধে মেহেন্দিগঞ্জের কাজিরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগে তরুণী জানিয়েছেন, বড় বোন তাকে পাশ্ববর্তী হিজলা থেকে রাজহংস-১০ লঞ্চে তুলে দেন। ওই দিন একই এলাকার মাসুমও ঢাকায় যাচ্ছিলেন। তখন মাসুমকে দেখতে পেয়ে বড় বোন তাকে (তরুণী) খেয়াল রাখতে বলেন। কিন্তু লঞ্চ ছাড়ার পরে গভীর রাতে মাসুম এসে তরুণীকে বিছানাসহ কেবিনে নিয়ে যায়। এবং রাতে আলাপচারিতার একপর্যায়ে তরুণীকে মাসুম বিবাহ করাসহ তার নামে অর্ধনির্মিত ভবন লিখে দেওয়ার প্রস্তাব করেন। কিন্তু এতে তরুণী সম্মত না হলে একপর্যায়ে জবরদস্তি শুরু করে এবং ওই রাতে কয়েক দফা তরুণীকে লঞ্চের কেবিনে মাসুম ধর্ষণ করে। পরে তরুণী কান্নাকাটি করলে তাকে গ্রামে গিয়ে বিয়ে করার ফের প্রস্তাব দিলেও সোমবার সকালে লঞ্চটি ঢাকায় পৌছালে মাসুম লাপাত্তা হয়ে যায়।

তরুণীর অভিযোগের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ঘটনার পর তরুণী গ্রামে ফিরে আসে এবং সোমবার থানা একটি অভিযোগ করেন। তরুণী অভিযোগে আরও উল্লেখ করেন, গ্রামে ফিরে মাসুমের বাসায় গিয়ে তার বাবাকে বিষয়টি জানালে তিনি সব শুনে চুপ থাকতে বলেন এবং ১০ হাজার টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে তাড়িয়ে দেন।

কাজীরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘ভুক্তভোগী অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এদিকে ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে মাসুম স্থানীয় সংবাদকর্মীদের মুঠোফোনে জানিয়েছেন, সেই রাতে তরুণী তার কেবিনে থাকলেও আলাপচারিতা ব্যতিত কিছু হয়নি।

Advertisement