Homeসব খবরজেলার খবরমাল্টা এখন চাষ হচ্ছে বরিশালে

মাল্টা এখন চাষ হচ্ছে বরিশালে

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার শিকারপুর গ্রামে প্রথম মাল্টার বাগান করেন গুরুদাস ব্যানার্জী শ্যামল। তার বাগানে রয়েছে অর্ধশত মাল্টা গাছ। চারা রোপনের দুবছর পর থেকেই পেতে শুরু করেন ফল। ৩ লাখ টাকা খরচ করে প্রায় ৮ লাখ টাকার ব্যবসা করেন তিনি এই বাগান থেকে। শুধু তাই নয় একদিকে যেমন বাড়ছে এর আবাদি জমির পরিমান তেমনি বাড়ছে এর উৎপাদন। বেশি লাভবান হওয়ায় এটি চাষে আগ্রহী হচ্ছেন কৃষকরা। তবে দাম নিয়ে অসন্তুষ্টি রয়েছে তাদের।

গুরুদাস ব্যানার্জী শ্যামল জানান, চারা রোপনের প্রথম দুই বছর পর প্রথমবার বাগান থেকে প্রায় ৩৫ হাজার টাকার মাল্টা বিক্রি করি। এরপরের বছর বিক্রি করি ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা এবং তার পরের বছর ২ লাখ ৩৫ হাজার টাকার মাল্টা বিক্রি করি। এভাবে প্রতি বছর এ বাগান থেকে মাল্টা বিক্রি করি। দেশি মাল্টা সারাবছর বাজার জাত করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে কোল্ডস্টোরেজের ব্যবস্থা করলে মাল্টা চাষিরা বেশ লাভবান হত। মাল্টা গাছ সাধারণত ৫ থেকে ৭ বছর ভালো ফলন দেয়।

এলাকায় তার মাল্টা বাগানের সাফল্য দেখে উৎসাহিত হয়ে মাল্টা চাষ শুরু করেছেন আরও অনেকে। সৃষ্টি হয়েছে কর্মসংস্থানের। স্থানীয়রা জানান, শ্যামল দার মাল্টা বাগান দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে আমরা মাল্টা বাগান শুরু করি। শুধু আমারা না আশেপাশের অনেকেই এখন মাল্টাগাছ লাগানো শুরু করেছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক মো রেজাউল হাসান জানান, বরিশাল অঞ্চলে মাল্টা চাষ যেহেতু দিনদিন বেড়ে চলছে সেক্ষেত্রে আমরা চেষ্টা করছি এটাকে কিভাবে আরও ছড়িয়ে দেয়া যায়।বরিশালে এ বছর প্রায় ২০০ একর জমিতে মাল্টা আবাদ হয়েছে। যা থেকে উৎপাদন হয়েছে ৪০০ মেট্রিক টন মাল্টা।

Advertisement