Homeসব খবরজেলার খবরব্রোকলির বাম্পার ফলন, লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন শাজাহান!

ব্রোকলির বাম্পার ফলন, লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন শাজাহান!

বাজারে ব্রোকলির ব্যাপক চাহিদা ও মূল্য ভালো থাকায় লাভের আশা করছেন তিনি। অধিক পুষ্টি গুণাগুণ সমৃদ্ধ ব্রোকলি চাষ করে লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন মেহেরপুর জেলায় প্রান্তিক কৃষক শাজাহান। আবহাওয়া ও জমি চাষের উপযোগী হওয়ায় ফলনও বেশ ভালো হয়েছে।

প্রচুর ভিটা’মিন ‘সি’, ক্যাল’সিয়াম ও লৌহ সমৃদ্ধ শীতকালীন সবজি ব্রোকলি। অনেকেই আবার সবুজ ফুলকপিও বলে থাকেন। সাদা রংয়ের ফুলকপির চেয়ে সুস্বাদু ও বেশি পুষ্টিগুণে ভরপুর এই ব্রোকলি। এই সবজির পরীক্ষামূলক চাষ শুরু করেছেন মেহেরপুরের কয়েকজন কৃষক। দেশের মানুষের কাছে কিছুটা অপরিচিত ও অপ্রচলিত সবজি হলেও এটি আবাদে কৃষকরা আর্থিকভাবে বেশি মুনাফা পাবে বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ। পরীক্ষামূলক চাষেই লাভবান হচ্ছেন তারা।

কৃষক শাজাহান আলী বলেন, পিকেএসএফ অর্থায়নে পরিচালিত সংস্থা পিএসকেএস তাদের কৃষি অফিসারের মাধ্যমে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দিয়েছে ব্রোকলি আবাদের। সেই সঙ্গে বীজও সরবরাহ করেন। তবে সাদা রংয়ের ফুলকপির চেয়ে এর রোগ বালাই ও খরচ কম। বাজারেও চাহিদা রয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে এই মৌসুমে লাভবান হতে পারবো। প্রতি শতক জায়গায় ২৫-৩০ দিন বয়সের ২০০টি চারা রোপন করে মাত্র ৫০-৬০ দিন পরই ৪০ মণ ব্রোকলি উৎপাদন করা সম্ভব।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শংকর কুমার বলেন, দেশে ব্রোকলি লাভজনক সবজি হিসেবে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এবং সবার কাছে সমাদৃত হচ্ছে। অন্যান্য সবজির চেয়ে ব্রোকলি অপেক্ষাকৃত বেশি পুষ্টি সমৃদ্ধ ও ক্যান্সার প্রতিরোধক। আমরাও ব্রোকলির চাষ বৃদ্ধির পরামর্শ দিচ্ছি। যারা ব্রোকলি চাষ করেছেন তাদের সাথে আমরা কথা বলেছি সকলেই ভালো ফলন পেয়েছেন এবং লাভবান হচ্ছেন।

Ads by Eonads

Advertisement