Saturday, September 24, 2022
Homeসব খবরক্রিকেটবোলিং র‍্যাঙ্কিংয়ে দুইয়ে মিরাজ, ক্যারিয়ার সেরা অবস্থানে মুশফিক

বোলিং র‍্যাঙ্কিংয়ে দুইয়ে মিরাজ, ক্যারিয়ার সেরা অবস্থানে মুশফিক

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দলীয় সাফল্যের পর ব্যক্তিগত অর্জনেও এসেছে সুখবর। আইসিসি ওয়ানডে বোলিং র‍্যাংকিংয়ে দুইয়ে উঠেছেন মেহেদি মিরাজ। টানা দুই ম্যাচে সেরা খেলোয়াড় মুশফিকুর রহিম অবস্থান করছেন ক্যারিয়ার সেরা ১৪ নম্বরে। আট ধাপ এগিয়ে নয়ে উঠেছেন মুস্তাফিজুর রহমান।

চলতি সিরিজের পারফরমেন্সের বিবেচনায় তিনধাপ এগিয়েছেন মিরাজ। দুই ম্যাচে ৭ উইকেট শিকার করেছেন মিরাজ। লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন মিরাজ। পরের ম্যাচে ২৮ রানে তিনটি। র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা ট্রেন্ট বোল্টের চেয়ে মাত্র ১২ পয়েন্ট পিছিয়ে মিরাজ।

এর আগে সেরা দুইয়ে উঠেছিলেন সাকিব ও রাজ্জাক। ২০০৯ সালে সাকিব আল হাসান প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে উঠেছিলেন শীর্ষে আর ২০১০ সালে আব্দুর রাজ্জাক দুইয়ে। বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানেরও আট ধাপ উন্নতি হয়েছে। দুই ম্যাচে তার শিকার ৬ উইকেট।

এদিকে, ধারাবাহিক পারফরমেন্সের পুরস্কার পেয়েছেন মুশফিক। দুই ওয়ানডেতেই চাপে পড়া দলের হয়ে অনেকা একাই লড়েছেন মুশফিক। এই কিপার-ব্যাটসম্যান প্রথম ম্যাচে করেন ৮৪, দ্বিতীয় ম্যাচে খেলেন ১২৫ রানের অসাধারণ এক ইনিংস। দুই ম্যাচেই জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। চার ধাপ এগিয়ে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উঠে এসেছেন ১৪ নম্বরে। এই মুহূর্তে যা বাংলাদেশিদের মধ্যে সেরা।

এছাড়া ইংল্যান্ডকে টপকে ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করে শীর্ষস্থান মজবুতের লক্ষ্য টিম টাইগার্সের। জুনের জিম্বাবুয়ে সফরে পয়েন্ট বাড়িয়ে নেয়ার সুযোগ তামিমের দলের। অক্টোবরে হোম সিরিজে টাইগারদের কঠিন চ্যালেঞ্জ ইংল্যান্ড। অবস্থান শক্ত করতে ২০২২ এর ফেব্রুয়ারিতে আফগানিস্তান সিরিজে চোখ বাংলাদেশের।

ঘরের মাঠে, যত বেশি সম্ভব পয়েন্ট তুলতে চাইবে বাংলাদেশ। উইন্ডিজের পর লঙ্কা বধে সেই পথে এগিয়ে গেছে তামিমের দল।লড়াই ১৩ দলের, আয়োজক ভারতসহ সরাসরি ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলবে সুপার লিগ টেবিলের শীর্ষ আট দল। প্রত্যেকের জন্য বরাদ্দ ৮ সিরিজ, ঘরে-বাইরে সমান চারটি কোরে সবার জন্য। মোট ২৪ ম্যাচে পয়েন্ট ২৪০।

গ্রুপিংয়ে বাংলাদেশ কিছুটা ভাগ্যবানও বলা যায়। সিরিজে খেলতে হবে না যে চার দলের সঙ্গে, সেই তালিকায় আছে ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। আট ম্যাচ থেকে টাইগারদের এখন ৫০ পয়েন্ট, শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারালে সেটা হবে ৬০, তাতে অবস্থান আরো শক্ত হয়ে যাবে।

যে পাঁচটি সিরিজ বাকি তার একটি ছিল আয়াল্যান্ডের সঙ্গে, যা করোনায় স্থগিত হয়ে যায়। সেই তিন ওয়ানডের সঙ্গে জুনের জিম্বাবুয়ে সফর আর ২০২২ এর ফেব্রুয়ারিতে ঘরের মাঠে আফগানিস্তান সিরিজ থেকে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়া সম্ভব।

কঠিন সিরিজের তালিকায় অক্টোবরে ইংল্যান্ডের সাথে হোম সিরিজ, ২০২২-এর মার্চে আছে সাউথ আফ্রিকা সফর। বিভিন্ন দলের সিরিজ বিভিন্ন সময়ে, মাঝপথে কখনোই সমান ম্যাচ খেলা অবস্থায় থাকবে না সব দল। তাই পরের বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করাটা খুব কঠিন হওয়ার কথা নয় টাইগারদের। আর আপাতত টেবিলের শীর্ষে থাকার আনন্দ উপভোগের সময়।

Advertisement