Wednesday, September 28, 2022
Homeসব খবরজাতীয়'আমার মারে কই লইয়া গেলা রে আল্লাহ'

‘আমার মারে কই লইয়া গেলা রে আল্লাহ’

‘আমার মারে কই লইয়া গেলা রে আল্লাহ, আমার মা…! আমার সবকিছু শ্যাষ হইয়া গেল আল্লাহ!’- শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে মাকে হারিয়ে এভাবেই আহাজারি করছিল রিফাত হোসেন (১৪)।গতকাল বুধবার দুপুরে রো রো ফেরি এনায়েতপুরী থেকে নামতে গিয়ে মানুষের ভিড়ে পদদলিত হয়ে মারা যান রিফাতের মা নিপা আক্তার (৪৫)। মাকে হারিয়ে দিশেহারা রিফাতের আহাজারি উপস্থিত সবাই চোখের পানি ধরে রাখতে পারেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শিমুলিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া রো রো ফেরিটি বাংলাবাজার ঘাটে ভিড়তেই লোকজন হুড়মুড়িয়ে নামতে শুরু করেন। ওই ফেরিতে মা নিপা আক্তারকে নিয়ে মাদারীপুরে গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিলেন রিফাত। ভিড়ের মধ্যে ব্যাগ হাতে নিয়ে সবার সঙ্গে নেমে পড়ে রিফাতও। কিন্তু পন্টুনে গিয়ে দেখতে পায় মা নেই। আশপাশে খুঁজতে থাকে মাকে। এক পর্যায়ে সবাই নেমে গেলে ফেরির ডেকে গিয়ে মায়ের নিথর দেহ পায় রিফাত। এ সময় শিশু রিফাতের কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।

গতকাল বুধবার বেলা ২টার দিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথে চলাচলকারী ফেরি এনায়েতপুরী থেকে নামতে গিয়ে পদদলিত হয়ে চারজন মারা যান। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে শাহ পরান ফেরিতে পদদলিত হয়ে একজন মারা যান। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পাঁচ্চর রয়েল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন বলেন, দুটি ফেরিতে মানুষের অসম্ভব ভিড় থাকায় ফেরিতে যাত্রীদের চাপে পড়েই পাঁচজন মারা গেছেন। এ সময় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।-সমকাল।

Advertisement