Homeফুটবলঅতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে নেইমারের গোলে এগিয়ে ব্রাজিল

অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে নেইমারের গোলে এগিয়ে ব্রাজিল

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ফেভারিট হিসেবেই কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে খেলতে নেমেছিল ব্রাজিল। তবে মাঠের খেলায় সেলেসাওদের সঙ্গে সমানতালে লড়াই করেছে ক্রোয়াটরা। তবে অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে নেইমারের গোলে এগিয়ে ব্রাজিল। কাতার বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়ার লড়াইয়ে নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা গোলশুন্য ড্র হয়। এরপর অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে লক্ষ্যভেদ করে ব্রাজিল শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়েছেন নেইমার।

ম্যাচের ৪৪ শতাংশ সময় বলের দখলে রেখে ব্রাজিলের গোলমুখে ছয়বার শট নেয় ক্রোয়েশিয়া। যদিও কোনোটিই লক্ষ্যে ছিল না। তবে এখানে বড় ভূমিকা রাখে সেলেসাওদের রক্ষণভাগ। অন্যদিকে ব্রাজিলের কাছে বলের দখল ছিল ৪২ শতাংশ সময়। নেইমার-ভিনিসিয়ুসরা ১৪টি শট নেয়, যার মাঝে আটটি লক্ষ্যে ছিল। অবশ্য তারাও কোনো সাফল্য পায়নি।

আজকের ম্যাচে ফেবারিট হিসেবেই নামে ব্রাজিল। ক্রোয়েশিয়া গত বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা দল হলেও মুখোমুখি লড়াইয়ে কখনোই ব্রাজিলকে হারাতে পারেনি। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এর আগে চারবার মোকাবেলা করেছে ক্রোয়েশিয়াকে। একবারও ক্রোয়াটরা হারাতে পারেনি সেলেসাওদের। তিনটি ম্যাচে জিতেছে ব্রাজিল, একটি হয়েছে ড্র।

তবে মাঠের খেলায় আগের ইতিহাসের ছিটেফোঁটাও দেখা যায়নি। শুরু থেকেই ব্রাজিলের ওপর একেরপর এক আক্রমণ শানায় ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড়রা। ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে গোলের জন্য প্রথম আক্রমণ করেন ব্রাজিলের ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। ছয় মিনিট পর গোলের সুবর্ণ সুযোগ মিস করেন ক্রোয়েশিয়ার জুরানোভিচ। এরপর ধীরে ধীরে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় তারা।

বলতে গেলে ম্যাচে বারবার ব্রাজিলের রক্ষণে ভীতি ছড়িয়েছে ক্রোয়েশিয়া। তবে ফিনিশিং দুর্বলতায় তারা কোনো শটই লক্ষ্যে রাখতে পারেনি। বিপরীতে ব্রাজিল যে একেবারে ছেড়ে কথা বলেছে তা নয়। তবে অল্প সুযোগের প্রতিটিই ঠিকঠাক লক্ষ্যে রেখেছে তারা। শুধু গোলের দেখাটাই পায়নি।

দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিলের জয়ের পথে একাই ঢাল হয়ে দাঁড়ান ক্রোয়াট গোলকিপার ডমিনিক লিভানকোভিচ। নেইমার, ভিনিসিয়ুস, রিচার্লিসনদের একেরপর এক আক্রমণ আটকে দেন তিনি। বলা যায় লিভানকোভিচের নৈপুণ্যেই গোলের দেখা পায়নি ব্রাজিল। যে কারণে নির্ধারিত সময়ে কোনো দল গোলের দেখা পায়নি। ম্যাচ গড়িয়েছে অতিরিক্ত সময়ে।

Ads by Eonads

Advertisement